দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মার্চে শুরু হওয়ার পর থেকে সকল শ্রেণি-পেশার লোকজনই এতে আক্রান্ত হচ্ছেন। এ তালিকায় চিকিৎসক, স্বাস্থ্য সেবাকর্মী ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লোকজনের পাশাপাশি আক্রান্ত হয়েছেন সরকারের উচ্চপদধারীরাও। এরইমধ্যে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মন্ত্রীর মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেছে। এখন পর্যন্ত দেশে সাবেক ও বর্তমান মিলিয়ে মোট ৬ জন মন্ত্রী ও ১০ জন সংসদ সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনা ছুঁয়েছে যেসব সাবেক ও বর্তমান মন্ত্রীকে:

জাতীয় সংসদের বর্তমান সংসদ সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম মারা যাওয়ার আগে তার শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছিল। তবে মৃত্যুর আগে তার একাধিক করোনা পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ এসেছিল। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহ’র শরীরেও করোনাভাইরাসের উপস্থিত শনাক্ত হয়েছিল। এ কারণেই মৃত্যু হয় তার। করোনায় সংক্রমিত হয়ে বর্তমানে বাসায় আইসোলেশনে রয়েছেন সাবেক স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক ও তার সহধর্মিণীর শরীরে করোনার উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির করোনা শনাক্ত হয়েছে। পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিংও করোনায় আক্রান্ত।

করোনায় আক্রান্ত যেসব সাংসদ: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মকবুল হোসেন। সাবেক সাংসদ ও চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আবদুস শহীদের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে সাবেক হুইপ নওগাঁ-২ আসনের শহিদুজ্জামান সরকার, রেল মন্ত্রণালয় বিষয়ক কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী, যশোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য রণজিত কুমার রায়, চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য মোসলেম উদ্দিন ও তার স্ত্রী। জামালপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য ফরিদুল হক খান দুলাল, চট্টগ্রাম-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মো. মোস্তাফিজুর রহমান সপরিবারে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ এবাদুল করিম বুলবুল এবং সিলেট থেকে নির্বাচিত গণফোরাম দলীয় সংসদ সদস্য মোকাব্বির খান।

যেসব সাংসদের পরিবারের সদস্যরা করোনায় আক্রান্ত: রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলীর স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন। এছাড়া পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দীন, বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সারহান নাসের তন্ময়, যশোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ ও টাঙ্গাইল-৬ আসনের সংসদ সদস্য আহসানুল ইসলামের পরিবারের সদস্যরা করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় তারা আইসোলেশনে রয়েছেন।