কবিতা : মুজাহিদের কন্ঠ
———-কামরুজ্জামান

মারবি, মার –
বুলেট বারুদ বোমা এই বুকে ;
তবুও যাবো না সরে, ইসলামি আন্দোলনের ছায়াতল থেকে!
নাহি তব ডরে খোদার পথে মরে,
ছুটে তব ছুটে ইনসিনিয়াতি জুলফিকার হাতে-
মৃত্যু -ঝরা -রক্ত – নিৎপীড়ন ভোরে।
আসিলে আসুক দন্ড ফাঁসি- ঝড় তুফান,
মৃত্যু তব ডরে, কন্ঠে বাজিলে খোদার গান ;
খুনে খুনে মিশে আছে বিশ্ব নবীর স্মৃতি মহান।
দৃঢ় ইমানে ওহুদ- বদরের গান গেয়ে,
ফেরদাউসের উচ্চ মাকাম লভ লভ –
আল্লাহর পথে শহীদ হয়ে।
মানব তরে মুক্তি গাহে সুন্নাহি কোরান,
বিশ্ববুকে দাড় করাব ঐ ইনসাফি মিজান।
তব রক্ত ঝরুক, প্রাণ ঝরুক, ভয় পাই না
ভয় পাই না – আসলে আসুক ঝড় তুফান।
দুনিয়া প্রীতি ভয়ভীতি বাস করে চরণতলে,
দিলে দিলে আল্লাহ রাসূলী প্রেয়ার জ্বলে।
জুলুমের কারাগারেও আমরণ আল্লাহর গান গাইব ;
কোরানের সুরে সুরে নিপীড়িত বিশ্বের দ্বারেদ্বারে –
মুক্তিভরা ঐ কালিমার পতাকাই উড়াব।
ইহজীবনের রস আনন্দ যাক যাক বেকে,
তবুও যাবো না সরে –
ইসলামী আন্দোলনের ছায়াতল থেকে।

মারবি? ফাঁসি দিবি?
মার, দে ফাঁসি – ভয় পাই না,
আল্লাহ রাসূল ছাড়া আর কিচ্ছু বুঝি না।
নমরূদ কেনান ফেরাউন এজিদ সীমারের
কারাগারে ফাঁসি, বরণ করি হেসে হেসে গেয়ে গেয়ে ;
জান্নাতের যাত্রী তব আল্লাহর পথে শহীদ হয়ে।
আমি মুজাহিদ হয়েছি তব
আশেকে রাসূল আর কোরানের পাখি,
দিলে দিলে আল্লাহর প্রেম রং দিয়াছি মাখি।
চেতনায় প্রেরনায় কেবলি সীরাতুন্নবী শান,
দীক্ষা দিল ওমর আলি সিদ্দিক ওসমান।
বিশ্বশান্তি ঐক্য সাম্য ঐ কোরানের বানী,
অসত্যের কারাগারে সত্যের আঘাত হানি।
জ্বালাবি, পোড়াবি, মাথার খুলি নিবি?
নে, জ্বালা – পোড়া – বুলেট তীর মার বুকে ;
তবুও সরবো না, সরে যাবো না –
ইসলামি আন্দোলনের ছায়াতল থেকে।
এই হৃদয়ে দুর্মরে গেঁথেছি শহীদ হওয়ার মন্ত্রণা,
আমি মুজাহিদ- আল্লাহকে ছাড়া কাউকে ডরি না।

মারবি, মার –
বুলেট বারুদ বোমা এই বুকে ;
তবুও যাবো না, ইসলামী আন্দোলনের ছায়াতল থেকে।

( উৎসর্গঃ আমেরিকার পাশবিক নির্যাতনে শাহাদাত বরণ করা স্নায়ু বিজ্ঞানী, হাফেজা ড.আফিফা সিদ্দিকাকে)