বাহাদুর আলম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : সারা দেশের বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিএনপির প্রতিবাদ কর্মসূচিতে বাধা দিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোমিনুল হকসহ অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে জেলা বিএনপি নেতারা। যদিও, পুলিশ ধস্তাধস্তির বিষয়টি অস্বীকার করেছে।

খবর নিয়ে জানা যায়, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পরিষদ ভবনের সামনে প্রতিবাদ সভা করার জন্য অবস্থান নেয় জেলা বিএনপি ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের শতাধিক নেতাকর্মীরা। তারা ব্যানার নিয়ে রাস্তায় দাঁড়ানোর সাথে সাথে সদর মডেল থানা পুলিশের দ্বিতীয় কর্মকর্তা সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ বাধা দেয়। এসময় ব্যানার ছিনিয়ে নিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে পুলিশ। এ নিয়ে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয় বিএনপি নেতাকর্মীদের।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক বলেন, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ সভা করার জন্য দাঁড়িয়েছিলাম। হঠাৎ করে পুলিশ এসে মারমুখী হয়ে আমাদের ওপর আক্রমণ করে। তবুও আমাদের নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়নি। এ ঘটনায় আমিসহ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছি।

এসময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রহিম বলেন, কেউ আহত হয়নি, কোনো ধস্তাধস্তির ঘটনাও ঘটেনি। তারা বের হতে চেয়েছিল, আমরা বের হতে দেইনি।